আজ- ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ মঙ্গলবার  রাত ৪:০৩

অতিরিক্ত ঘুষের টাকা না দেয়ায় দলিল রেজিস্ট্রি বন্ধ

 

দৃষ্টি নিউজ:

প্রতীকী ছবি

টাঙ্গাইল সদর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে দলিল লেখক সমিতির আন্দোলনের মুখে সব ধরণের দলিল রেজিস্ট্রি বন্ধ রয়েছে। সোমবার(২৩ সেপ্টেম্বর) সাব-রেজিস্ট্রার(চলতি দায়িত্ব) মো. নুর নেওয়াজ দলিল প্রতি এক থেকে দুই হাজার টাকা অতিরিক্ত ঘুষ দাবি করেন। দলিল লেখকরা আপত্তি জানালে সাব-রেজিস্ট্রার দলিল সম্পাদন করবেন না বলে কার্যালয় থেকে চলে যান।

জানাগেছে, দেলদুয়ার উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার মো. নুর নেওয়াজ চলতি দায়িত্ব হিসেবে টাঙ্গাইল সদর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে সপ্তায় সোম ও মঙ্গলবার দুইদিন দায়িত্ব পালন করে থাকেন। সপ্তায় দুইদিন অফিস করলেও তিনি দুপুরে এসে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করে চলে যান। সোমবার ১৪৬টি নানা ধরণের দলিল রেজিস্ট্রি করার জন্য সাব-রেজিস্ট্রারের সামনে উপস্থাপন করা হয়। ১৪৬টির মধ্যে ৮১টি দলিল রেজিস্ট্রি করে তিনি বিশ্রামের জন্য কার্যালয়ের দু’তলায় চলে যান। বিকাল চারটার দিকে তিনি পুনরায় দলিল রেজিস্ট্রি করার জন্য এজলাসে বসলে অফিস সহকারী রিনা আক্তার বলেন ‘স্যার, দলিল রেজিস্ট্রিতে লেখকরা একশ’ টাকা করে কম দিয়েছেন’। এ কথা শুনে সাব-রেজিস্ট্রার মো. নুর নেওয়াজ ক্ষুব্ধ হন এবং দলিল প্রতি এক থেকে দুই হাজার টাকা অতিরিক্ত না দিলে দলিল রেজিস্ট্রি করবেন না বলে দলিল লেখকদের জানিয়ে এজলাস ছেড়ে খাস কামরায় চলে যান।

কয়েকজন দলিল লেখক জানান, চলতি দায়িত্বে থাকা সাব-রেজিস্ট্রার একজন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। তিনি মাঝেমধ্যেই দলিল লেখকদের সাথে বড়াই করে বলেন, ‘এক সময় তিনি ‘ক্যাডার’ ছিলেন। অনেককেই তিনি পিটিয়ে আহত করেছেন।

এ সময় টাঙ্গাইল সদর উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. জহুরুল হক ও সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন রশিদ সোনা সাব-রেজিস্ট্রার মো. নুর নেওয়াজের সাথে দেখা করে দলিল রেজিস্ট্রি করার অনুরোধ করেন। সাব-রেজিস্ট্রার অতিরিক্ত ঘুষের দাবি পুনর্ব্যক্ত করেন। এক পর্যায়ে সাব-রেজিস্ট্রার বাকী দলিল রেজিস্ট্রি না করে অফিস ত্যাগ করেন।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. জহুরুল হক ও সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন রশিদ সোনা জানান, তারা দলিল খরচের সরকারি ফি’র বাইরে অলিখিতভাবে নির্ধারিত(ঘুষের টাকা) অল্প পরিমান( দলিল ভেদে ১২০০-২২০০টাকা) সাব-রেজিস্ট্রারকে দিয়ে থাকেন। সোমবার দলিল প্রতি অতিরিক্ত ঘুষ দাবি করায় তারা প্রতিবাদ করেছেন।

তারা আরো জানান, দলিল লেখকরা সাব-রেজিস্ট্রারকে ঘুষ না দিলে কোনদিনও তার দলিল রেজিস্ট্রি হবেনা- এটা ওপেন সিক্রেট। তারা নিয়মিত যে পরিমান ঘুষ দিয়ে থাকেন সাব-রেজিস্ট্রার তারচেয়ে অতিরিক্ত এক থেকে দুই হাজার টাকা দাবি করায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে প্রতিকারের দাবিতে তারা মঙ্গলবার(২৪ সেপ্টেম্বর) প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করবেন।

সদর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের সহকারী রিনা আক্তার ঘুষ নেয়ার কথা স্বীকার করে জানান, তিনি সাব-রেজিস্ট্রারের কথা মতো কাজ করেন। নিজে কোন সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার রাখেন না। আবার কবে থেকে দলিল রেজিস্ট্রি হবে তা তিনি জানেন না।

এ বিষয়ে সাব-রেজিস্ট্রার মো. নুর নেওয়াজের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে চান না। তবে কথা বলার এক ফাঁকে তিনি বলেন, অফিস সহকারী কী করে না করে তা আমি জানিনা।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 

0 Comments

You can be the first one to leave a comment.

 
 

Leave a Comment

 




 
 

 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno