আজ- ২৭শে মে, ২০১৯ ইং, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ সোমবার  সকাল ১০:৪০

কারাবন্দি সাবেক এমপি রানা আদালতে অসুস্থ ॥ হাসপাতালে ভর্তি

 

দৃষ্টি নিউজ:


টাঙ্গাইল-৩(ঘাটাইল) আসনের সাবেক এমপি আমানুর রহমান খান রানাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার(২৮ ফেব্রুয়ারি) চাঞ্চল্যকর জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমদ হত্যা মামলার বাদিপক্ষের ধার্য সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে দুপুরে উচ্চ রক্তচাপ জনিত কারণে রানা অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। তবে এর আগে বাদিপক্ষের আরো এক জনের সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন হয়। সাক্ষ্য গ্রহণ ও জেরা শেষে আদালতের বিচারক মাকসুদা খানম আগামি ৪ এপ্রিল এ মামলার পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য করেন। টাঙ্গাইলের আদালত পরিদর্শক আনোয়ারুল ইসলাম সাবেক এমপি রানা অসুস্থতার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক নারায়ন চন্দ্র সাহা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে সাবেক এমপি রানাকে উচ্চ রক্তচাপ, বুক ব্যাথা আর ডায়াবেটিক সমস্যা জনিত কারণে আদালত পুলিশ হাসপাতালে আনেন। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে ভর্তি রয়েছেন। হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাকে ভর্তি করেন। বর্তমানে তার রক্তচাপ উঠা-নামা করছে। বুকে ব্যাথা ও ডায়াবেটিক সমস্যাটা এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তবে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এতদ স্বত্তেও যদি উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন হয় তবে ঢাকা অথবা অন্যত্র পাঠানো হতে পারে বলেও জানান তিনি।
জানা যায়, বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতে মুক্তিযোদ্ধা ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমদ হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। সে অনুয়ায়ী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা ২৫ মিনিটে এ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি রানাকে টাঙ্গাইলের বিচারিক আদালতে হাজির করা হয়। পরে ১১টা ২০ মিনিটে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মাকসুদা খানম এ চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার বিচারিক কার্যক্রম শুরু করেন। রাষ্ট্রপক্ষে এ মামলার সাক্ষী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাজমুল হুদা নবীন সাক্ষ্য গ্রহনের জন্য হাজিরা প্রদান করেন এবং সাক্ষ্য প্রদান করেন। পরে বিচারক আগামি ৪ এপ্রিল এ মামলার অন্যান্য সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহনের দিন ধার্য করেন। এ নিয়ে আদালতে মোট ১৪জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন হলো।
দীর্ঘ ২২ মাস পলাতক থাকার পর রানা বিগত ২০১৬ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইলের আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন আবেদন করেন। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। বেশ কয়েক দফা উচ্চ আদালত ও নিন্ম-আদালতে আবেদন করেও জামিন পাননি তিনি।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি রাতে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমদকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তার কলেজপাড়া এলাকার বাসার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 

0 Comments

You can be the first one to leave a comment.

 
 

Leave a Comment

 




 
 

 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno