আজ- ৬ই জুলাই, ২০২০ ইং, ২২শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ সোমবার  দুপুর ২:২৭

রিমান্ড শেষে গ্রেপ্তারকৃত কথিত দুই সাংবাদিক কারাগারে

 

দৃষ্টি নিউজ:

টাঙ্গাইলে র‌্যাব পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত কথিত দুই সাংবাদিককে একদিনের রিমান্ড শেষে মঙ্গলবার(৯ জুন) কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

তারা হচ্ছেন, জি বাংলা’র প্রতিনিধি মো. আলমগীর হোসেন (৪০) ও সাপ্তাহিক টাঙ্গাইল প্রতিদিনের সাবেক স্টাফ রিপোর্টার মো. তারেক রহমান (২৯)।

এর আগে র‌্যাব-১২ এর তিন নম্বর কোম্পানী কমান্ডার মেজর আবু নাঈম মো. তালাতের নেতৃত্বে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদেরকে টাঙ্গাইল সদর থানায় সোপর্দ করে র‌্যাব। পুলিশ সোমবার(৮ জুন) আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করে।

আদালত একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করে। রিমান্ড মঞ্জুরের পর পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। মঙ্গলবার টাঙ্গাইল সদর আমলী আদালতে তাদেরকে হাজির করা হয়। আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমিনুল ইসলাম তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেন।

র‌্যাবের কোম্পানী কমান্ডার আবু নাঈম মো. তালাত জানান, সাংবাদিকতার নামে চাঁদাবাজ চক্রের অন্যান্য সদস্যদের চিহিৃত করা গেছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, সদর উপজেলার হুগড়া গ্রামের অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েকে স্কুলের যাওয়া আসার পথে একই গ্রামের রেকাত মন্ডলের ছেলে ফারুক হোসেন (২২) উত্যক্ত করে এবং প্রেমের প্রস্তাব দেয়। এ বিষয়ে তার মেয়ে তাদের জানালে তারা ফারুকের বাবা-মাকে বিষয়টি জানায়। তারপরও গত ৩০ মে দুপুরে এক প্রতিবেশির মাধ্যমে ফারুক তাদের (ওই স্কুল ছাত্রী) বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব পাঠায়। তারা এ প্রস্তাব নাকচ করে দেন।

পরদিন গ্রেপ্তারকৃত দুইজনসহ কয়েকজন কথিত সাংবাদিক ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে নিজেদের র‌্যাব ও সাংবাদিক পরিচয় দেন। তারা ফারুকের সাথে ওই স্কুল ছাত্রীকে বিয়ে দেয়ার জন্য চাপ দেয়। বিয়ে না দিলে ওই ছাত্রীর ক্ষতি করবে বলে তার ছবি তোলেন ও ভিডিও করেন।

এক পর্যায়ে তারা ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। এসময় ওই ছাত্রীর বাবা-মা তাদের দশ হাজার টাকা চাঁদা দেন। তারা বাকি ৪০ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে পাঠিয়ে দেয়ার কথা বলে চলে আসে। পরে ওই মেয়ের বাবা-মা টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার এবং টাঙ্গাইলে দায়িত্বরত র‌্যাবের কোম্পানী কমান্ডারের কাছে বিচার চেয়ে আবেদন করেন।

শুক্রবার রাতে টাঙ্গাইল সদর থানায় ওই ছাত্রীর মা বাদি হয়ে উত্যক্তকারি ফারুক এবং চাঁদা নেয়ায় দৈনিক আজকের প্রভাত পত্রিকার টাঙ্গাইল প্রতিনিধি এস এম আতোয়ার রহমান, দৈনিক জনতার কথা পত্রিকার প্রতিবেদক জহিরুল ইসলাম, সাপ্তাহিক ইনতেজার পত্রিকার প্রতিবেদক মো. সবুর মিয়া, জি বাংলার প্রতিবেদক আলমগীর হোসেনসহ অজ্ঞাত আরো ৪-৫জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 

0 Comments

You can be the first one to leave a comment.

 
 

Leave a Comment

 




 
 

 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno