আজ- ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার  রাত ১:১৩

কক্সবাজারে নিহত ছাত্রলীগ কর্মীর বাড়িতে শোকের মাতম

 

দৃষ্টি নিউজ:

কক্সবাজারের কলাতলীস্থ সি ক্লাসিক রিসোর্টের ৮তলা থেকে পড়ে নিহত ছাত্রলীগ কর্মী সোহাগ বাবু শেখের দাফন শুক্রবার(২০ নভেম্বর) জুমআ’র নামাজের পর টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় গোরস্থানে সম্পন্ন করা হয়েছে।

এর আগে তার মরদেহ শুক্রবার সকালে তার বাড়ি টাঙ্গাইল পৌরসভার আদালত পাড়ায় আনা হলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। সোহাগ বাবু শেখকে শেষবার এক নজর দেখার জন্য স্থানীয় শ’ শ’ নারী-পুরুষ তাদের আদালত পাড়ার বাসায় ভির করে।

নিহত সোহাগ বাবু শেখ পৌরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের আদালত পাড়ার মোনায়েম খানসুরের ছোট ছেলে।

নিহতের বাবা মোনায়েম খান খানসুর কক্সবাজারের ওই ঘটনাকে পরিকল্পিত হত্যা বলে দাবি করেন। এ সময় তিনি হত্যাকারীদের শাস্তি দাবিও করেন।

নিহতের ভাই নাছির জানান, ঘটনার আগে সোহাগ বাবু তার বড় ভাইকে ৬০০টাকা পাঠাতে বলে। বড় ভাই টাকা বিকালে দিতে চাইলে তাকে জরুরিভাবে পাঠাতে বলে। তা না হলে দ্বীপ তাকে মারবে বলে জানায়।

কিন্তু টাকা পাঠানোর পরও টাঙ্গাইলের আওয়ামীলীগ নেত্রী শাহিন আরা মিষ্টুর ছেলে দ্বীপ বেড়াতে যাওয়া সোহাগ বাবুকে মারধর করে। এটা তারা পরে জানতে পারেন। সে সময় সোহাগ বাবু আরও বলেছিল ওরা কেউ ফোন দিলে ওদের কথা না শুনতে। ওরা তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। এরপর ওর কাছ থেকে মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয়। তারপর আর কোন যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

পরে মঙ্গলবার(১৭ নভেম্বর) রাতে তারা খবর পান বাবু নাকি আত্মহত্যা করেছে। তারা এটা বিশ্বাস করেন না। তিনি দাবি করেন, দ্বীপ-ই তার ভাই সোহাগ বাবুকে হত্যা করেছে। ৮তলা থেকে কেউ নিচে পড়ে গেলে তার শরীরের অনেক হাড় ভেঙ্গে যাওয়ার কথা, অনেকাংশ থেতলে যাওয়ার কথা। কিন্তু সোহাগ বাবুর শরীরে এমন আলামত নেই।

নিহতের ফুফু রানু সুলতানা বলেন, সোহাগ বাবু খুব ভালো ছেলে ছিল। ওর বাবার সাথে রং এর কাজ করতো। কয়েকদিন আগে এলাকার অনেকের সাথে কক্সবাজার বেড়াতে যায়। বেড়াতে যাওয়ার জন্য আমরাই বাবুকে কিছু টাকা দিয়েছিলাম। ওর সাথে কারো কোন শত্রুতা নেই।

এ বিষয়ে দ্বীপের মা মিষ্টু জানান, আদালতপাড়া থেকে গত ১৪ নভেম্বর ৫৩ জন ছেলে কক্সবাজারের যান। সাথে তার ছেলে দ্বীপও যান। তার ছেলেকে সোহাগের আত্মীয়রা যেভাবে দায়ি করছেন সেটা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

দ্বীপের কাছ থেকে সোহাগ বাবু ৬০০টাকা ধার নিয়েছিল। সেই টাকার কথাটিই তার পরিবারকে সোহাগ বাবু জানায় যে দ্বীপের কাছে থেকে টাকা নিয়েছি ফেরত দিতে হবে। সেই সূত্র ধরে তারা অভিযোগ করছেন। কক্সবাজারের হোটেলে সকল সিসি ফুটেজ দেখে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদেরকে অভিযোগ করার মতো কোন প্রমাণ পায়নি।

প্রকাশ, গত ১৪ নভেম্বর(শনিবার) টাঙ্গাইল থেকে ১৪নং ওর্য়াড ছাত্রলীগ (আদালত পাড়া বয়েজ) এর আয়োজনে ৫৩জনের একটি দল কক্সবাজারে ভ্রমণে যায়। সেখানে পৌঁছে তারা কলাতলীস্থ সি ক্লাসিক রিসোর্ট হোটেলে ওঠে। সবাই যে যার মতো করে হোটেলে অবস্থান করেন।

সোহাগ বাবু শেখ হোটেলের ৮০২ নম্বর রুমে ছিল। হঠাৎ সোহাগ বাবু শেখ হোটেলের ৮তলা থেকে নিচে পড়ে যায় বলে খবর আসে। সবাই তাকে উদ্ধার করে দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno