আজ- ৭ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ মঙ্গলবার  সকাল ৬:৫৯

টাঙ্গাইল থানায় গরু চুরির অভিযোগ করায় পাল্টা অভিযোগে আদালতে মামলা

 

‌দৃষ্টি নিউজ:

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার মগড়া ইউনিয়নের নন্দবালা গ্রামে একটি গরু চুরির ঘটনায় থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে থানায় অভিযোগ দেওয়ায় পুলিশি তদন্তে সন্দেহভাজন ব্যক্তি টাঙ্গাইলের আদালতে পাল্টা মামলা দায়ের করেছেন। বিষয়টি স্থানীয় পর্যায়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

জানাগেছে, মগড়া ইউনিয়নের নন্দবালা গ্রামের মো. সলিম উদ্দিনের ছেলে মো. শাকিলের গোয়াল ঘর থেকে গত ৪ আগস্ট দিনগত রাতে একটি ষাড় গরু চুরি হয়। এ ঘটনায় মো. শাকিল বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। দীর্ঘদিনের পুলিশি তদন্তে ওই ঘটনায় নন্দবালা গ্রামের মৃত হেকমত সরকারের ছেলে মো. জহিরুল ইসলামকে সন্দেহভাজন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি না হয়ে মো. জহিরুল ইসলাম টাঙ্গাইলের আদালতে সাজানো ঘটনার আলোকে ১০৭/১১৭(গ) ধারায় একটি মামলা(নং-৬৫৫/২০২১ইং) দায়ের করেন।

মামলায় থানায় অভিযোগকারী মো. শাকিল ও মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে সাংবাদিক ও কথাসাহিত্যিক মো. জামাল উদ্দিন জামালের পরিবারের ৬ ব্যক্তিকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।


সরেজমিনে স্থানীয়রা জানায়, গরু চুরির ঘটনায় থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে অভিযোগ দেওয়ায় পুলিশি তদন্তে মো. জহিরুল ইসলামকে সন্দেহভাজন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। বেশ কয়েকবার পুলিশ এলাকায় গিয়ে মো. জহিরুল ইসলামকে খোঁজ করলেও তিনি বাড়িতে অবস্থান করে দেখা করেন নি।

পুলিশ তার বাড়িতে দেখা করতে গেলে তিনি দৌঁড়ে নদী সাঁতরিয়ে পালিয়ে যান। পরে মো. জহিরুল ইসলাম নন্দবালা গ্রামের সরকারি চাকুরিজীবী তিন ব্যক্তির পরামর্শে আদালতে মিথ্যা অভিযোগে সাংবাদিক জামাল উদ্দিন জামাল সহ ৬ জনের নামে আদালতে মামলা দায়ের করেন।



স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মজনু মিয়া জানান, সাংবাদিক ও কথাসাহিত্যিক জামাল উদ্দিন জামাল ঢাকায় থাকেন। স্থানীয় রাজনীতি বা সামাজিক কোন ঝামেলায় তিনি কখনোই জড়ান না। তাকে জড়িয়ে আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করা কোনভাবেই ঠিক হয় নাই।


টাঙ্গাইল সদর থানার এসআই আমিনুল ইসলাম জানান, গরু চুরির ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। তিনি তদন্তে এক ব্যক্তিকে সন্দেহভাজন হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদের চেষ্টা করে তার সাক্ষাত পাননি। বাড়িতে গেলেও তিনি দেখা করেন নাই।


মগড়া ইউপি চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. আজাহারুল ইসলাম জানান, সাংবাদিক জামাল উদ্দিন জামাল ঢাকায় সাংবাদিকতা করেন। তিনি এলাকায় খুব কম আসেন। স্থানীয় কোন বিষয়ে তিনি জড়ান না। তাকে আসামি করে মিথ্যা মামলা দায়ের করে মো. জহিরুল ইসলাম অন্যায় করেছেন।


ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের(ডিআরইউ) সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু সাংবাদিক ও কথাসাহিত্যিক জামাল উদ্দিন জামালের নামে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি করে জানান, জামাল উদ্দিন জামাল একজন সজ্জন সাংবাদিক। তাঁর নামে দায়েরকৃত মামলার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত দোষীকে আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno