আজ- ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ রবিবার  রাত ৪:২০

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ কর্মীর আত্মহত্যা!

 

দৃষ্টি নিউজ:

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক শামীম আল মামুনের কাছ থেকে পাওনা টাকা না পেয়ে ফেসবুক আইডিতে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ কর্মী বাবুল সিকদার(৩০) ফাঁসিতে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) সকালে বাবুল সিকদারের লাশ বাড়ির পাশে একটি গাছ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর আগে বাবুল সিকদার তার ফেসবুক আইডিতে মৃত্যুর জন্য কারা দায়ী এ নিয়ে স্ট্যাটাস দেন। মৃত্যুর আগের দিন পোস্ট করা স্ট্যাটাসে মির্জাপুর উপজেলায় আলোচনা- সমালোচনার ঝড় বাইছে।

স্থানীয়রা জানায়, মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক শামীম আলম মামুনের সাথে দীর্ঘদিন পূর্বে ফতেপুর ইউনিয়নের বহনতলী গ্রামের বাবুল সিকদারের পরিচয় হয়। পরিচয়ের সূত্র ধরে বাবুল সিকদার আওয়ামী যুবলীগের রাজনীতিতে জড়ান। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে সম্পর্ক ঘণিষ্ঠতায় রূপ নেয়।

ফেসবুকের স্ট্যাটাসে প্রকাশ, বাবুল সিকদারকে ব্যবসায়ীক অংশিদার করার কথা বলে তার কাছ থেকে শামীম আল মামুন বিভিন্ন সময় স্ট্যাম্পে সাক্ষর দিয়ে ১৫ লাখ টাকা ধার নেন। বাবুল সিকদার ধার দেয়া ওই ১৫ লাখ টাকা অন্য একজনের কাছ থেকে ধার এনে শামীমকে দেন। পাওনাদার বাবুল সিকদারকে প্রতিনিয়ত টাকা ফেরত দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করছিল। বাবুল সিকদার পাওয়ানাদারের চাপে শামীম আল মামুনের কাছে ধার দেয়া টাকা ফেরত চান। কিন্তু শামীম আল মামুন টাকা ফেরত না দিয়ে প্রভাব খাটিয়ে বাবুল সিকদারকে বিভিন্নভাবে হয়রানি ও ভয়ভীতি দেখায় বলে ফেসবুক স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেন। স্ট্যাটাসে শামীম ছাড়াও গেরেজ মাসুদ, শাহীন ও শাজেদুলের নামোল্লেখ করা হয়েছে।

নিহতের পরিবারের আভিযোগ, শামীম আল মামুন ব্যবসায়ীক লোভ দেখিয়ে বাবুল সিকদারের কাছ থেকে ১৫ লাখ টাকা ধার হিসাবে নেন। ওই টাকা বাবুল অন্য এক ব্যক্তির কাছ থেকে ধার নিয়ে শামীমকে দেন। সেই টাকা শামীম ফেরত না দিয়ে উল্টো তাকে ভয়ভীতি দেখাতে শুরু করে। এ কারণে বাবুল মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন এবং আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। আত্মহত্যার আগের দিন বাবুল তার নিজের ফেসবুক আইডিতে মৃত্যুর কারণ ও কারা কারা জড়িত তাদের নাম লিখে গেছেন। একই সাথে শামীম আল মামুন যে স্ট্যাম্পে সাক্ষর দিয়ে টাকা নিয়েছেন সেটির ছবিও পোস্ট করেছেন।

এ বিষয়ে মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক শামীম আল মামুনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. সায়েদুর রহমান জানান, যুবলীগ কর্মী বাবুল সিকদার আত্মহত্যার আগের দিন তার ফেসবুক আইডিতে যে স্ট্যাটাস দিয়েছেন সেটি তদন্ত করা হচ্ছে। একই সাথে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক শামীম আল মামুনও পুলিশের নজরদারিতে রয়েছেন।

এ ঘটনায় তার সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। নিহতের লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno