আজ- ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ বুধবার  রাত ১০:৩১

বঙ্গবন্ধুসেতুর পূর্বপ্রান্তে ফের সংঘর্ষের আশঙ্কা॥ দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি মামলা

 

দৃষ্টি নিউজ:

দুই পক্ষের সংঘষের্ ঘটনায় আহত নজরুল ও আকবর

বঙ্গবন্ধুসেতুর পূর্বপ্রান্তে ট্রাকে মালামাল লোড-আনালোড নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে শনিবার(১০ অক্টোবর) দফায় দফায় সংঘর্ষে দুইজন আহত হওয়ার ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংঘর্ষের ঘটনায় কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়াবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী তালুকদারসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করায় স্থানীয় পর্যায়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুনরায় যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে।

জানাগেছে, বঙ্গবন্ধুসেতুর পূর্বপ্রান্তে ট্রাকে মালামাল লোড-আনালোড নিয়ে কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়াবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী তালুকদার ও স্থানীয় কুলি সর্দার আকবর আলী আকন্দের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল।

শনিবার সকালে গোহালিয়াবাড়ী ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম তালুকদার তার গ্রাম বেলটিয়া থেকে ইউনিয়ন পরিষদে যাওয়ার পথে প্রতিপক্ষের আকবর আলী আকন্দ ও তার লোকজনরা তার (নজরুল তালুকদারের) উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

খবর পেয়ে নজরুল ইসলাম তালুকদারের স্বজনরা এগিয়ে এসে আকবর আলী আকন্দের উপর পাল্টা হামলা চালালে অন্যান্যরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের গুরুতর আহত দু’জনকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গোহালিয়াবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী তালুকদারসহ ৭ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

পরে শনিবার সন্ধ্যায় আকবরের ভাই মৃত ইনছের আকন্দের ছেলে আবু বক্কার আকন্দ বাদি হয়ে ২৬জনকে আসামি করে কালিহাতী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ইউপি চেয়ারম্যান সহ আটককৃতদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠায়।

ওই ঘটনায় অপর পক্ষের লোকজন থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ গ্রহন না করায় বেলটিয়া গ্রামের মৃত মতিয়ার রহমান তালুকদারের ছেলে মো. শাহীন তালুকদার বাদি হয়ে রোববার(১১ অক্টোবর) টাঙ্গাইলের আমলী আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

আদালত মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কালিহাতী থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

আদালত সূত্র জানায়, টাঙ্গাইলের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী(কালিহাতী) আদালতে মো. শাহীন তালুকদার বাদি হয়ে দায়েরকৃত মামলায় গোহালিয়াবাড়ী ইউপি সদস্য বল্লভবাড়ী গ্রামের মৃত আবেদ আলী আকন্দের ছেলে আব্দুল হাই আকন্দ ও আহত

আকবর আলী আকন্দ সহ ৭জনকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া আবু বক্কার আকন্দের দায়েরকৃত মামলায় অভিযুক্ত ২৬ জনের মধ্যে ১৫ জন আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন।

দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি মামলা ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী তালুকদার সহ ৭ জনকে গ্রেপ্তারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় বেলটিয়াবাড়ী, জোকারচর, বল্লভবাড়ী, কুর্শাবেনু, দ্বৈবগাতি ও সীমান্তবর্তী ভূঞাপুর উপজেলার সারপলশিয়া ও চরপাথাইলকান্দী গ্রামে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

গোহালিয়াবাড়ী ইউপি সদস্য আব্দুল হাই আকন্দ জানান, ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী তালুকদার ও তার অনুসারীরা দীর্ঘদিন যাবত এলাকায় বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে।

বঙ্গবন্ধুসেতুর পূর্বপ্রান্তে বল্লভবাড়ী এলাকায় ট্রাক লোড-আনলোডের দখল নিতে তারা ইতোপূর্বেও একাধিকবার হামলা চালিয়েছে। তারা কুলির সর্দার আকবরকে একা পেয়ে হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করেছে।

গোহালিয়াবাড়ী ইউপি সদস্য ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সুলতান ফকির জানান, স্থানীয় একটি মহল ট্রাকে মালামাল লোড-আনলোডের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে এলাকায় নানা অপকর্ম করছে।

তাদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলে বিভিন্ন কৌশলে হামলা-মামলার মাধ্যমে হয়রানী করা হয়। গত এক মাসে কুলির সর্দার আকবর আলী আকন্দের লোকজন স্থানীয় শাজাহান

তালুকদার, মামুন তালুকদার ও শাহ আলম তালুকদারকে পিটিয়ে আহত করেছে। তাদের সর্বশেষ হামলার শিকার আহত ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম তালুকদার।

টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) কাজী নুসরাত এদীব লুনা জানান, দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় কালিহাতী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অপরপক্ষের কেউ থানায় মামলা করতে যায়নি।

এছাড়া ওই এলাকায় পুলিশি তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। পুনরায় কোন পক্ষ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করলে কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno