আজ- ২রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ রবিবার  সকাল ১০:২৪

সুইসাইড নোট লিখে কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

 

দৃষ্টি নিউজ:

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা সদরের মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের ছাত্রী তানিয়ার নগ্ন ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ায় অপমানের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে সুইসাইড নোট লিখে আত্মহত্যা করেছেন।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকালে ভাতগ্রাম ইউনিয়নের সিংজুরী গ্রামে ওই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে। তানিয়া ওই গ্রামের হারুন মিয়ার মেয়ে।


পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ভাতগ্রাম ইউনিয়নের বুড়িহাটি গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে সুজন(২৪) প্রেমের ফাঁদে ফেলে তানিয়ার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। গোপনে তা ভিডিও ধারণ এবং ফেসবুকে তা প্রকাশ করার ভয় দেখিয়ে তানিয়ার কাছ থেকে বিভিন্ন সময় প্রায় দেড় লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়।

এছাড়া কলেজে যাওয়া-আসার পথে আরও টাকার জন্য তাকে মারধর করাসহ নানাভাবে ভয় ও হয়রানি করত। গত পনের দিন আগে ওই ভিডিওটি ‘লোকাল সাফি’ নামে একটি ফেসবুক আইডি থেকে নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়।

ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে পড়লে তানিয়া মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। এক পর্যায়ে বুধবার বিকালে তিনি সুইসাইড় নোট লিখে তাদের ঘরে গলায় উড়না পেঁচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন। তানিয়ার আত্মহত্যার খবর জানাজানি হওয়ার পর অভিযুক্ত সুজন গা ঢাকা দিয়েছেন।


তানিয়ার বাবা হারুন মিয়া অভিযোগ করে জানান, গত পনের দিন আগে তাঁর মেয়ে কলেজ থেকে ফেরার পথে সিংজুরী ব্রিজের কাছে তানিয়াকে আটকিয়ে সুজন মারপিট করে। পরে খবর পেয়ে তারা সুজনকে আটকে রাখেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম বাদশা এসে সুজনকে সতর্ক করে তার বাবা-মায়ের হাতে তুলে দেন। কিন্তু তারপরও সুজন তানিয়াকে নানা ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দিতে থাকে।


ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম বাদশা জানান, সুজন বেয়ারা টাইপের ছেলে। সে তানিয়ার জীবনটাকেই শেষ করে দিল। এটা কোন ভাবেই মেনে নেওয়ার মত নয়।


তানিয়ার বড় ভাই ডিপ্লোমা প্রকৌশলী আবু তালেব অভিযোগ করেন, ভিডিও ছাড়ার আগে হিলারি নামে তার দশম শ্রেণির ফুফাতো বোনের কাছে সুজন হুমকি দিয়ে এসএমএস পাঠায়। তাতে সে লেখে ‘তানি এখন বেশি বুঝল, ওর মরণ আছে’।

এরপর ‘লোকাল সাফি’ আইডি থেকে ওই ভিডিও ছেড়ে দিলে তানিয়া মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে এবং আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে মির্জাপুর থানা পুলিশ গিয়ে তানিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

তানিয়ার লেখা সুইসাইড় নোটঃ

‘আমারে তুমরা সবাই মাফ কইরা দিও, আমার জন্য তুমাগো অনেক মান সম্মান নষ্ট হইছে, আমি চাই না তুমাগো আরো মান সম্মান নষ্ট হক। তোমরা জানো না ঐতি কি কি করছে আমার সাথে। আমের জোর কইরা Blacjmail কইরা আমার সাথে ধরর্ষন করছে। তারপর আমার ছবি তুইলা সেই ছবি দিয়া আমারে Blacmail, আমার কাছে থাইক দার লাখ টাকার জিনিস নিছে।’


এ বিষয়ে মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, তানিয়া নামের ওই কলেজ ছাত্রী ফাঁসিতে আত্মহত্যা করেছেন। আত্মহত্যার স্থান থেকে একটি সুইসাইড় নোট উদ্ধার করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno