আজ- ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার  সকাল ১০:০৫

কমিউটার ট্রেনে আগুনের ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন

 

দৃষ্টি নিউজ:

টাঙ্গাইল ঘারিন্দা রেলওয়ে স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা কমিউটার ট্রেনে আগুনের ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার(১৬ নভেম্বর) বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে ওই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।


এর আগে বুধবার দিনগত গভীর রাতে নাশকতার উদ্দেশ্যে এ ঘটনা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা বলে দাবি তুলেছেন পুলিশ ও রেলওয়ে বিভাগ। এতে ট্রেনের দুটি বগি সম্পূর্ণ ও একটি বগির আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।


ট্রেনে আগুন দেয়ার খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. কায়ছারুল ইসলাম, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার সহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।


স্টেশন সূত্রে জানা যায়, বুধবার দিনগত রাত পৌনে তিনটার দিকে টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেনে আগুন দেখতে পেয়ে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয় স্টেশন কর্তৃপক্ষ। খবর পেয়ে স্টেশনে গিয়ে ট্রেনের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

এসময় ট্রেনের ইঞ্জিনের কাছাকাছি দুটি বগি পুরোপুরি এবং একটি বগির আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ঘারিন্দা রেলস্টেশনে সিসি ক্যামেরা থাকলেও ট্রেনটির যে বগিগুলোতে আগুন লেগেছে সেই অংশ সিসি ক্যামেরার আওতায় বাইরে ছিল।


টাঙ্গাইল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ ইদ্রিচ আলী মিয়া জানান, বুধবার দিনগত রাত ৩ টার দিকে খবর পেয়ে স্টেশনে গিয়ে ৪০ মিনিটের চেষ্টায় ট্রেনের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ট্রেনের ইঞ্জিনের কাছাকাছি দুটি বগি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কমিউটার ট্রেনটি টাঙ্গাইল টু ঢাকা মুখী অভিমুখে স্টেশনে দাঁড়িয়ে ছিল।


ঘারিন্দা স্টেশন মাস্টার তরিকুল ইসলাম জানান, রাতে কে বা কারা ট্রেনে আগুন লাগিয়েছে তা জানা যায়নি। এতে কমিউটার ট্রেনের দুইটি বগি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। এছাড়া আরও একটি বগি আংশিক পুড়েছে। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। তবে পাশেই পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেন থাকলেও সেটিতে আগুন লাগেনি।


রেলওয়ের পাকশি বিভাগের মহা-ব্যবস্থাপক সাহ্ সুফি নুর মোহাম্মদ জানান, প্রাথমিকভাবে এটি নাশকতা বলে মনে হচ্ছে। এ ঘটনায় তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে। পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি বেশ কিছুক্ষণ স্টেশনে দাঁড়িয়ে ছিল।

এ কারণে কমিউটার ট্রেন আড়াল হয়ে যায়। ফলে দুর্বৃত্তরা আগুন দেওয়ার সুযোগ পায়। পরে ওই ট্রেনটি ৩টার দিকে গন্তব্যে ছেড়ে দেওয়ার পরে দাঁড়িয়ে থাকা কমিউটার ট্রেনে আগুন দেখতে পাওয়া যায়।


টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, নাশকতার উদ্দেশ্যেই কমিউটার ট্রেনেটিতে আগুন দেওয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বুধবার রাত ১২টা থেকে ট্রেনটি স্টেশনেই দাঁড়িয়ে ছিল। এ ঘটনায় রেলওয়ে পুলিশ মামলা দায়ের করবে। তারাও এ নিয়ে কাজ করছেন। কারা ঘটনটি ঘটিয়েছে তা তদন্ত করে বের করা হবে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno