আজ- ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বুধবার  সকাল ৯:১৫

ব্যান্ডউইডথে অবিচ্ছিন্ন থাকবে বাংলাদেশ

 

গাজী শাহনেওয়াজ(অতিথি লেখক):

dristy-tv-pic-2ব্যান্ডউইডথে অবিচ্ছিন্ন থাকবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেডের (বিএসসিসিএল) সঙ্গে দ্বিতীয় নেটওয়ার্ক যুক্ত হওয়ায় এই সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে আগামী মার্চে শুরু হবে এর কার্যক্রম। এই প্রকল্পে ব্যয় হবে প্রায় ৭০০ কোটি টাকা।
এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের বিএসসিসিএল শাখার উপ-সচিব মো. রিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘সাবমেরিন ক্যাবল নেটওয়ার্ক দ্বিতীয় একটি প্রকল্পের কাজ চলছে। আশা করি, ২০১৭ সালের মার্চে তা পূর্ণতা পাবে। এটি যুক্ত হলে ক্যাবল ক্রটির কারণে সময়ে সময়ে বাংলাদেশ নেটওয়ার্ক থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে, সেই সংকট কেটে যাবে।’
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাউথইস্ট এশিয়া-মিডল ইস্ট-ওয়েস্টার্ন ইউরোপ (এসএমডবিস্নউই-৫) স্থাপন লোকেশন হচ্ছে ভারত মহাসাগর, বঙ্গোপসাগর, আরব সাগর, লোহিত সাগর ও ভূ-মধ্যসাগর। তবে গ্রাউন্ড লোকেশন পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার কুয়াকাটা। পর্যটননগরীতে প্রায় ১০ একর জমিজুড়ে নির্মাণ করা হচ্ছে ল্যান্ডিং স্টেশন, সংযোগ লাইন এবং ফাংশনাল বিল্ডিং।
এই সংযোগটি সাগরের তলদেশ দিয়ে ফ্রান্স থেকে সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলংকা ও মিয়ানমার হয়ে বাংলাদেশ পর্যন্ত দীর্ঘ ২০ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত। এর সঙ্গে এশিয়া, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের ১৪টি দেশের ১৬টি টেলিকম কোম্পানি যুক্ত আছে। প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশন যুক্ত করার ব্যাকবোন তৈরির কাজও সম্পন্নের পথে, যা সংশ্লিস্ট স্টেশন থেকে কক্সবাজারের জিলং পর্যন্ত যাবে। লক্ষ্য বাংলাদেশকে বিশ্বের সঙ্গে সার্বক্ষণিক কানেক্ট রাখা। বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ বলে মনে করছেন নীতিনির্ধারকরা। এই খাতের উল্লেখযোগ্য সাফল্যের জন্য ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে পুরস্কৃত করা হয়েছে।
মন্ত্রণালয় এবং বিটিআরসির কর্মকর্তারা জানান, প্রকল্পটি চালু হলে থ্রিজি মোবাইল সার্ভিসে চালু হওয়া ব্যান্ডউইডথ চাহিদা পূরণে আরো সক্ষম হবে। দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল সংযোগ যুক্ত হলে ব্যান্ডউইডথে অবিচ্ছিন্ন থাকবে দেশ। এর পাশাপাশি ক্যাবলের মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগও নিরবচ্ছিন্ন রাখা সম্ভব হবে। বর্তমানে দেশে ব্যান্ডউইডথের পরিমাণ ২০০ জিবি। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ১৩০০ গিগাবাউইট ব্যান্ডউইডথ যুক্ত হবে এখানে। সম্প্রতি দুই দফায় সাবমেরিন ক্যাবল কাটা পড়ে। এ কারণে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূ্র্ব-এশিয়ার দেশগুলোতে ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়, যার মধ্যে বাংলাদেশ ও ভারত ছিল। এটার সংযোগ স্থাপন হলে সেই সমস্যা দূর হবে বলে জানিয়েছেন বিএসসিসিএলের সংশ্লিষ্টরা।
এর আগে একনেক সভায় প্রকল্পটির অনুমোদন হয়। অনুমোদনের পর সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তুফা কামাল বলেছিলেন, দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল প্রকল্পের ফলে ডেটা ও ভয়েসের ক্ষেত্রে দেশের ব্যান্ডউইডথ চাহিদা বৃদ্ধি পাবে। ফলে দেশে নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সংযোগ দেয়া যাবে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও এর বিস্তৃতি ঘটানো যাবে। একই সঙ্গে বাড়বে ইন্টারনেটের ক্যাপাসিটি ও স্পিড দুটোই। আর কল সেন্টারে সফটওয়্যার রপ্তানি ও ডাটা এন্ট্রি খাত প্রসারিত হবে। এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৬৬০ কোটি ৬৪ লাখ টাকা, যার মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ১৬৬ কোটি, সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ১৪২ কোটি ৬৪ লাখ এবং বাকি ৩৫২ কোটি টাকা ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি)।dristy-tv-pic-3
জানা গেছে, এসইএ-এমই-ডবিস্নউই-৪ কনসোর্টিয়ামের আওতায় কক্সবাজারে প্রথম সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে ২০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইডথ সরবরাহ করছে বিএসসিসিএল। এর মাধ্যমে দেশের আইসিটি ও টেলিকম কোম্পানিগুলোর চাহিদার বড় অংশ পূরণ করছে কোম্পানিটি। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ব্যান্ডউইডথ বিক্রিসহ মোট টার্নওভার দাঁড়িয়েছে ৫০ কোটি ৬ লাখ ৮৩ হাজার টাকা। দেশে ব্যান্ডউইডথের দাম কমে যাওয়া আগের বছরের তুলনায় এর পরিমাণ প্রায় ২৮ শতাংশ কমেছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রকাশিত তিন প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত প্রতিবেদন অনুসারে, ২০১৫ সালের জুলাই থেকে এ বছর মার্চ পর্যন্ত কোম্পাানির টার্নওভার ৪০ কোটি ৮০ লাখ টাকা। দেশে ব্যান্ডউইডথের ব্যবহার ৩০০ জিবিপিএস ছাড়ালেও চাহিদার সিংহভাগই সরররাহ করে বেসরকারি খাতের লাইসেন্সপ্রাপ্ত ছয়টি ইন্টারন্যাশনাল টেরিস্ট্রিয়াল ক্যাবল (আইসিটি) সংস্থা। সংস্থাটি বাইরের থেকে আমদানি করে এই ব্যান্ডউইডথ সরবরাহ করে, যার পরিমাণ প্রায় ১২০ জিবিপিএস। ফলে বিএসসিসিএলের ব্যবহারের পর জমা ১০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ ভারতীয় কোম্পানি ভারত সঞ্চার নিগার লিমিটেডের কাছে বিক্রি করছে। এই খাত থেকে কোম্পানিটির অতিরিক্ত প্রায় ১০ কোটি টাকা আয় হতে পারে বলে জানিয়েছেন এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno