আজ- ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বুধবার  সকাল ৮:২১

রণদা প্রসাদ সাহার ছোট মেয়ে জয়াপতির চিরবিদায়

 

দৃষ্টি নিউজ:

dristy-pic-63
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট অব বেঙ্গলের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এশিয়াখ্যাত দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার ছোট মেয়ে মিসেস জয়াপতি সর্বস্তরের মানুষের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে শনিবার(১৭ ডিসেম্বর) রাতে চিরবিদায় নিয়েছেন। গত ৯ ডিসেম্বর লন্ডনের বারনেট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। শনিবার রাত পৌনে ৮টায় রণদা প্রসাদ সাহার বাড়ির মন্দির প্রাঙ্গণে তার মরদেহ দাহ করা হয়।
শনিবার বিকাল ৪টা ৫ মিনিটে আর অ্যান্ড আর অ্যাভিয়েশন শিকদার-৫ বেসরকারি একটি হেলিকপ্টারযোগে তার মরদেহ মির্জাপুরে কুমুদিনী চত্ত্বরের বাইরের মাঠে পৌঁছায়। সেখানে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধার জন্য রাখা হয়। স্থানীয় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, জেলা-উপজেলা সিভিল ও পুলিশ প্রশাসন, মির্জাপুর পৌরসভা, সাবেক সাংসদ আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী সহ হাজারো মানুষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে তার মরদেহ কুমুদিনী চত্বরের হাসপাতালের প্রধান ফটকের সামনে রাখা হয়। সেখানে কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজীব প্রসাদ সাহা, পরিচালক (শিক্ষা) প্রতিভা মুৎসুদ্দি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
পরে কুমুদিনী পিকআপ ভ্যানযোগে জয়াপতির মরদেহ কুমুদিনী হাসপাতাল, কুমুদিনী মেডিকেল কলেজ, কুমুদিনী নার্সিং স্কুল ও কলেজের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শ্রদ্ধার জন্য কুমুদিনী চত্বরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করানো হয়। বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে মরদেহ ভারতেশ্বরী হোমস চত্বরে নেয়া হয়। সেখানে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন এমপি, টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান খান ফারুক, জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব হোসেন, পুলিশ সুপার মো. মাহবুব আলম, ভারতেশ্বরী হোমসের শিক্ষক-শিক্ষিকা, ডাক্তার, নার্স ও মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী, আইসিডিডিআরবি এবং পরিবারের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
এরআগে শনিবার দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফাইটে জয়াপতির মরদেহ ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছায়। সেখান থেকে তাকে কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থার প্রধান কার্যালয় গুলশানে নেয়া হয়। পরে বিকাল সোয়া ৩টার দিকে সেখান থেকে মরদেহ মির্জাপুরের উদ্দেশে তেজগাঁও পুরাতন বিমান বন্দরে নেয়া হয়।
প্রকাশ, জয়াপতি ১৯৩২ সালে মির্জাপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫৬ থেকে ১৯৬৪ সাল পর্যন্ত ভারতেশ্বরী হোমসের অধ্যরে দায়িত্ব পালন করে। ’৭১ এর ৭ মে রণদা প্রসাদ সাহা ও তার ছেলে ভবানী প্রসাদ সাহা রবিকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ধরে নিয়ে যাওয়ার পর কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব নেন। ২০০০ সালে তার ভাতিজা রাজীব প্রসাদ সাহার কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করে স্বামী ডা. বিষ্ণুপতির সঙ্গে লন্ডনে চলে যান। তিনি মহাবীর পতি চন্দন ও ঝুমুর পতিসহ বহু গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
শনিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে রণদা প্রসাদ সাহার বাড়ির মন্দির প্রাঙ্গণে তার মরদেহ দাহ করা হয়।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno