আজ- ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বুধবার  সকাল ৯:২৬

সিপিবির একাদশ কংগ্রেস শুরু

 

দৃষ্টি নিউজ:

dristy-12ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে ‘ব্যর্থ’ এবং বিএনপিকে ‘আরও বেশি ব্যর্থ’ দল বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। শুক্রবার(২৮ অক্টোবর) বিকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সিপিবির চার দিনব্যাপী একাদশ কংগ্রেসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শনিবার(২৯ অক্টোবর) থেকে সোমবার পর্যন্ত মহানগর নাট্যমঞ্চে দলটির কাউন্সিল অধিবেশন চলবে।
মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, একবার আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় যায়, আরেকবার বিএনপি যায়। ফলে ক্ষমতার হাতবদল হয়, বুর্জোয়া শাসনের অবসান হয় না। এই দুই দলের বিরুদ্ধে তিনি বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প গড়ার ডাক দেন।
শুক্রবার(২৮ অক্টোবর) বিকাল ৩টার দিকে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দলটির কংগ্রেস শুরু হয়। এর আগে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কয়েক হাজার নেতাকর্মী বিপ্লবের প্রতীক লাল পতাকা এবং লাল ক্যাপ মাথায় দিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দলটির কংগ্রেসস্থলে উপস্থিত হন। কংগ্রেস শুরুর কিছুক্ষণ পরেই বৃষ্টি নামলেও কর্মীরা দাঁড়িয়ে থেকে নেতাদের বক্তব্য শোনেন। দলটির কংগ্রেসে আটটি দেশের প্রায় ২৪ জন অতিথি উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে তাদের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। এ ছাড়া সিপিবির কংগ্রেসে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাজনৈতিক দলের বাণী দেয়ার কথা জানানো হয়।
মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘আজকে এক ভয়াবহ পরিণতি আমাদের ওপর চেপে বসেছে। এর থেকে মুক্তি পেতে হলে মন্দের ভালো খুঁজে লাভ হবে না। বুর্জোয়া শাসনের অবসান করতে হলে এই দুই বুর্জোয়া দলের (আওয়ামী লীগ-বিএনপি) বাইরে গণতান্ত্রিক বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তির ঐক্যের সরকার কায়েম করতে হবে।’
লিখিত বক্তব্যে সিপিবি সভাপতি বলেন, ‘দেশের মানুষ বুর্জোয়া রাজনীতির প্রতারণা ও অপশাসনে অতিষ্ঠ। তারা এই জাঁতাকল থেকে মুক্ত হতে চায়। এই অসহনীয় পরিস্থিতিকে পরিবর্তন করার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে বামপন্থীদের।’ তিনি বলেন, ‘আমি উদাত্ত কণ্ঠে আহ্বান জানাই, দেশের সব কমিউনিস্টরা একতাবদ্ধ হোন। আসুন, বামপন্থীরা সবাই এক হই। দ্বিদলীয় ধারার বাইরে এ দেশের সব বাম, প্রগতিশীল ও প্রকৃত গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল, ব্যক্তি ও শক্তিকে আহ্বান জানাই নূ্যনতম ইস্যুতে হলেও পরিবর্তনের জন্য বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তুলি।’
সিপিবির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ বলেন, ‘আমাদের সরকার ভারতের স্বার্থের কাছে জাতীয় স্বার্থ জলাঞ্জলি দিচ্ছে। এমনকি দুই দেশের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান মিলে রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনের যে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে, তাতে সুন্দরবন ধ্বংস হয়ে যাবে। আমরা সর্বশক্তি দিয়ে তা প্রতিরোধ করবই, করব।’
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সিপিবির উপদেষ্টা মনজুরুল আহসান খান, প্রবীণ বাম নেতা জসীমউদ্দীন ম-ল, সহিদুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ। উদ্বোধনী সমাবেশ শেষে মিছিল বের করে দলটি। শিখা চিরন্তনের ফটক দিয়ে বের হয়ে শাহবাগ-টিএসসি হয়ে শহীদ মিনারে গিয়ে মিছিলটি শেষ হয়। এতে দলের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno