আজ- ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ মঙ্গলবার  রাত ১০:২৪

সোনিয়া ক্লিনিকে নারীর বদলে কাটা হলো যুবকের পিত্তথলী!

 

দৃষ্টি নিউজ:

টাঙ্গাইলে ভুল চিকিৎসায় অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে এক যুবকের পিত্তথলী কাটার অভিযোগ উঠেছে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। রোববার(২১ মে) দুপুরে ভুল চিকিৎসার শিকার যুবক মো. পারভেজ প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

একজন নারী রোগীর চিকিৎসাপত্র দেখে ওই যুবকের পিত্তথলীর অস্ত্রোপচার করেন টাঙ্গাইল শহরের নতুন বাসস্ট্যান্ডের সোনিয়া নার্সিং হোমের সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. মো. তুহিন তালুকদার।


অভিযোগে জানা গেছে, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বোয়ালী গ্রামের আ. কাদের শেখের ছেলে মো. পারভেজ পেটে প্যানক্রিয়াজের ব্যথা হওয়ায় গত ২৭ এপ্রিল টাঙ্গাইল সোনিয়া নার্সিং হোমের সার্জারি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মো. তুহিন তালুকদারের কাছে যান। পরে ওই চিকিৎসক পারভেজকে দেখে আল্ট্রাসনোগ্রাম ও এক্সরে পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দেন। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওই নার্সিং হোম থেকে ওই রোগী পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে রিপোর্ট চিকিৎসককে দেখান। পরে চিকিৎসক রিপোর্ট দেখে তাৎক্ষণিক অপারেশনের কথা জানান।

চিকিৎসকের কথায় ওইদিন পারভেজের পেটে অস্ত্রোপচার করে পিত্তথলী কেটে ফেলেন চিকিৎসক তুহিন তালুকদার। অপারেশনের পর পিত্তথলী তার স্বজনদের দেখালেও পিত্তথলীতে কোন পাথর ছিল না। পরে রোগীর স্বজনদের জানানো হয়- কেটে ফেলা পিত্তথলীতে কোন ক্যান্সারের জীবানু রয়েছে কিনা সেটার পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানোর কারণে পিত্তথলী নার্সিং হোমে রেখে দেন।

কয়েকদিন চিকিৎসা শেষে বকেয়া টাকা আদায় শেষে নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষ রোগীর স্বজনদের ছাড়পত্র দেন। পরে রোগীর স্বজনরা ছাড়পত্র নিয়ে দেখতে পান রোগী পারভেজের ভুল চিকিৎসা করা হয়েছে। পারভেজের স্থানে পারভীন নামের এক নারীর রিপোর্ট দেখে সার্জারী চিকিৎসক তার পিত্তথলী কেটে ফেলেছেন। বিষয়টি চিকিৎসক ও নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষকে জানানো হলে রোগী ও তার স্বজনদের কাছে তারা ভুল স্বীকার করে দু:খ প্রকাশ করেন।


রোগী পারভেজের স্ত্রী তামান্না হাসান বিজলি জানান, চিকিৎসক তুহিন ও নার্সিং হোমের মালিক আবুল কালাম রিজভী ভুল চিকিৎসার জন্য শুধু দু:খ প্রকাশ করেছেন। এটা নিয়ে বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেছেন। তারা নাকি অনেক ক্ষমতাধর টাকা দিয়ে সব ম্যানেজ করে ফেলবেন।


ভুল চিকিৎসার শিকার মো. পারভেজ জানান, একই দিনে তার সাথে পারভীন নামে একজন নারী রোগীর পিত্তথলীর অপারেশন করা হয়। এতে ওই নারীর রিপোর্ট দেখে তার ভুল চিকিৎসা করেছেন ডাক্তার। পিত্তথলী কাটার পর থেকে এখনও পেটে ব্যাথা হয়। ব্যাথার জন্য নিয়মিত ব্যাথানাশক ওষুধ খেতে হচ্ছে। ভুল চিকিৎসার প্রতিকার চাইলে নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষ হুমকি দেন। পরে ভুল চিকিৎসা ও প্রতারণার কারণে জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ভুল চিকিৎসায় তার যে ক্ষতি হয়েছে তার বিচার চান।


সোনিয়া নার্সিং হোমের মালিক আবুল কালাম রিজভী জানান, ওই রোগীর সঠিকভাবেই পিত্তথলীর অপারেশন হয়েছে। তবে তার রিপোর্টের স্থানে একজন নারীর রিপোর্ট চলে যায়। ওইদিন নার্সিং হোমে পাঁচটি অপারেশন হয়েছে। এছাড়া পিত্তথলীর বায়োপসি রিপোর্টটি হারিয়ে গিয়েছে। এতে ওই রোগী টাকা চাচ্ছে।


এ বিষয়ে ডা. তুহিন তালুকদারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। এরপর তাকে খুদেবার্তা পাঠিয়েও কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করেছে

 
 
 
 
 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মু. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল
আশ্রম মার্কেট ২য় তলা, জেলা সদর রোড, বটতলা, টাঙ্গাইল-১৯০০।
ইমেইল: dristytv@gmail.com, info@dristy.tv, editor@dristy.tv
মোবাইল: +৮৮০১৭১৮-০৬৭২৬৩, +৮৮০১৬১০-৭৭৭০৫৩

shopno